টিকিট কালোবাজারীদের ধরতে জিরো টলারেন্স: রেলমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০২:৩৫:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪
  • / ২৯ Time View

টিকিট কালোবাজারীদের ধরতে জোর চেষ্টা করছি। এরমধ্যে বেশ কিছু কালোবাজারী ও সিন্ডিকেটের নেতা ধরা পড়েছে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী মো. জিল্লুল হাকিম।

তিনি আরও বলেন, টিকিট কালোবাজারীদের ধরতে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করা হচ্ছে। আপনারা কালোবাজারীদের থেকে কোনো টিকিট কাটবেন না। কেউ যদি টিকেটের নির্ধারিত দামে চেয়ে বেশি দাম চায়, তাহলে বুঝতে হবে সে কালোবাজারী।

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) বেলা ১১টার দিকে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলকে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপির সময় রাজবাড়ীর ফরিদপুর ও ভাটিয়াপাড়া রেললাইন তুলে বিক্রি করা শুরু হয়েছিলো। শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর রেলসহ সবক্ষেত্রে উন্নয়ন হয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা জনগণ ও প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়ন চান। সবাই আন্তরিক হয়ে চেষ্টা করলে দেশকে একটা উন্নত দেশে পরিনত করা সম্ভব।

এর আগে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয়, দলীয়সহ অঙ্গ সংগঠনের পতাকা উত্তোলন এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান নেতাকর্মীরা। পরে একটি দলীয় কার্যালয় হতে একটি র‌্যালি নিয়ে রেলগেট সংলগ্ন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলকে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

টিকিট কালোবাজারীদের ধরতে জিরো টলারেন্স: রেলমন্ত্রী

Update Time : ০২:৩৫:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪

টিকিট কালোবাজারীদের ধরতে জোর চেষ্টা করছি। এরমধ্যে বেশ কিছু কালোবাজারী ও সিন্ডিকেটের নেতা ধরা পড়েছে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী মো. জিল্লুল হাকিম।

তিনি আরও বলেন, টিকিট কালোবাজারীদের ধরতে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করা হচ্ছে। আপনারা কালোবাজারীদের থেকে কোনো টিকিট কাটবেন না। কেউ যদি টিকেটের নির্ধারিত দামে চেয়ে বেশি দাম চায়, তাহলে বুঝতে হবে সে কালোবাজারী।

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) বেলা ১১টার দিকে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলকে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপির সময় রাজবাড়ীর ফরিদপুর ও ভাটিয়াপাড়া রেললাইন তুলে বিক্রি করা শুরু হয়েছিলো। শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর রেলসহ সবক্ষেত্রে উন্নয়ন হয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা জনগণ ও প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়ন চান। সবাই আন্তরিক হয়ে চেষ্টা করলে দেশকে একটা উন্নত দেশে পরিনত করা সম্ভব।

এর আগে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয়, দলীয়সহ অঙ্গ সংগঠনের পতাকা উত্তোলন এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান নেতাকর্মীরা। পরে একটি দলীয় কার্যালয় হতে একটি র‌্যালি নিয়ে রেলগেট সংলগ্ন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলকে শ্রদ্ধা জানানো হয়।