Friday, September 24, 2021
Homeজাতীয়জাতীয় পতাকার গিনেস বুক রেকর্ড আমাদের অহংকার : তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জাতীয় পতাকার গিনেস বুক রেকর্ড আমাদের অহংকার : তথ্য প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: 

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান বলেছেন, বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার গিনেস বুক রেকর্ড আমাদের অহংকার ও গৌরবের। যা জাতি হিসেবে আমাদের মাথা উঁচু করবে, মর্যাদা সমুন্নত রাখবে।

শনিবার (২৪ জুলাই) বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে ১৬০০০ খাম দিয়ে কারুশিল্পী সাইমন ইমরান হায়দারের তৈরি ২৪০ বর্গমিটারের বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ জাতীয় পতাকার প্রদর্শনীতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ডা. মো. মুরাদ হাসান বলেন, তরুণ উদ্যোক্তা বলতে আমরা যা বুঝি—এই নবীন উদ্যোক্তারা, যারা এই প্রজন্মকে প্রতিনিধিত্ব করেন, তাদের একজন আমাদের সায়মন ইমরান হায়দার। এই প্রচেষ্টা ও অর্জন দেশবাসীকে আনন্দিত করার পাশাপাশি বাংলাদেশের ভাবমূর্তি বিশ্বে আরও উজ্জ্বল করবে।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে ১৬০০০ খাম দিয়ে কারুশিল্পী সাইমন ইমরান হায়দারের তৈরি সর্ববৃহৎ জাতীয় পতাকার প্রদর্শনী অনুষ্ঠান

May be an image of 3 people, people sitting, people standing and indoor

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত লাল-সবুজের পতাকা জাতির শ্রেষ্ঠ অর্জন। এ পতাকা আমাদের উজ্জীবিত ও অনুপ্রাণিত করে, এগিয়ে যাবার অনুপ্রেরণা যোগায়। তারুণ্যের স্পর্ধিত অহংকার এ পতাকাকে পৃথিবীর পথে পথে তুলে ধরবে। বিশ্ববাসী অবাক বিস্ময়ে বলবে—সাবাশ বাংলাদেশ! বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে—আমাদের অহংকার ও গৌরবের, যা জাতি হিসেবে আমাদের মাথা উঁচু করবে, মর্যাদা সমুন্নত রাখবে।

শিল্পী সায়মন ইমরান হায়দার বলেন, গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে জায়গা করে নেওয়া ২৪০ বর্গমিটার আয়তনের এই পতাকাটি প্রায় ১৬ হাজার লাল সবুজ খাম দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। আমাদের লক্ষ্য ছিল এমন কিছু করা যাতে এ রেকর্ডটা দীর্ঘমেয়াদে থাকে। তাই আমি কাজ করছিলাম এটি নিয়ে প্রায় তিন বছর ধরে। আমি আমার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা করেছি।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল, ইতিহাসবিদ মুনতাসীর মামুন প্রমুখ।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular