গুগলের ৩০০ কোটি টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০১:৩৪:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪
  • / ৩০ Time View

ফ্রান্সের বাজার নজরদারি সংস্থা ইইউ বুদ্ধিবৃত্তিক সম্পত্তি বিষয়ক নিয়ম ও সে দেশের প্রকাশক ও বার্তা সংস্থাগুলোর সঙ্গে চুক্তি লঙ্ঘনের অভিযোগে গুগলকে ২৫০ মিলিয়ন ইউরো (তিনশ কোটি টাকা) জরিমানা করেছে৷

বুধবার প্রযুক্তি সংস্থা অ্যালফাবেটের গুগলকে ফ্রান্সের প্রতিযোগিতা বিষয়ক নজরদারি সংস্থা জরিমানা দিয়েছে৷ গুগল তার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআইনির্ভর চ্যাটবট বার্ডকে, যা পরে নাম বদলে হয় ‘জেমিনি’, প্রকাশক বা বার্তা সংস্থাদের অজান্তে তাদের তথ্যের ওপর প্রশিক্ষণ দিয়েছে৷

২০২২ সালে প্রকাশকদের সাথে গুগলের সমঝোতায় গুগল মোট সাতটি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল৷ এর মধ্যে চারটি ভঙ্গ করেছে বলে অভিযোগ জানাচ্ছে নজরদারি সংস্থাটি৷ প্রকাশকদের কন্টেন্ট গুগল কীভাবে ব্যবহার করবে, সেবিষয়ে প্রকাশকদের অনুমতি না নেওয়ায়, কন্টেন্টের দাম সঠিকভাবে নির্ধারণ করতে পারেননি প্রকাশকরা, অভিযোগ গুগলের বিরুদ্ধে৷

এই জরিমানাকে গুগল অসামঞ্জস্যপূর্ণ বলেছে৷ গুগলের মতে, নজরদারি সংস্থা যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করেনি যেভাবে গুগল বর্তমান পরিস্থিতি, যেখানে ভবিষ্যত কোন দিকে যাবে তা বলা কঠিন, তেমন অবস্থাতেও কাজ করে যাচ্ছে৷ কিন্তু, ‘এখন এগিয়ে যাবার সময়’ বলে এই জরিমানা মেনেও নিয়েছে গুগল৷

এআই যেভাবে প্রকাশক, লেখক বা বার্তা সংস্থাদের কাজ কোনো ধরনের অনুমতি ছাড়াই সংগ্রহ করে, তা ঠেকাতে চাইছেন লেখক-প্রকাশকরা৷ এমন আবহে এই জরিমানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দিচ্ছে৷

মনে করা হচ্ছিল, এই দ্বন্দ্ব ২০২২ সালেই শেষ, যখন এই একই মার্কিন প্রযুক্তি সংস্থা তার বিরুদ্ধে একটি তদন্তের মাধ্যমে ওঠা প্রাথমিক জরিমানার মামলার আপিল ফিরিয়ে নেয়৷ কিন্তু ফ্রান্স একমাত্র ইইউ-রাষ্ট্র নয় যারা গুগলের সংবাদ সংগ্রহের প্রক্রিয়াকে চ্যালেঞ্জ করছে না৷

স্পেনের প্রতিযোগিতা বিষয়ক নজরদারি সংস্থা গত বছর একটি তদন্ত শুরু করে, যার কাজ সংবাদ সংস্থা ও প্রকাশনার কাজে তথাকথিত ‘প্রতিযোগিতাবিরোধী কার্যকলাপের’ কেমন প্রভাব পড়ে, তা দেখা৷

২০২২ সালে জার্মানির নজরদারি সংস্থা গুগলের নিউজ শোকেস পরিষেবাকে ঘিরে একটি তদন্ত বন্ধ করে৷ কারণ, গুগল প্রতিযোগিতামূলক প্রশ্ন যাতে না ওঠে, সে জন্য তার কাজে কিছু ‘গুরুত্বপূর্ণ বদল’ এনেছিল৷

দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস ২০২৩ সালে গুগলের প্রতিদ্বন্দ্বী মাইক্রোসফট ও ওপেনএআইয়ের বিরুদ্ধে মামলা করে৷ তাদের অভিযোগ, অনুমতি ছাড়াই চ্যাটবট প্রযুক্তিকে প্রশিক্ষিত করতে লাখো প্রতিবেদন সংগ্রহ করা হয়েছে৷ সূত্র: ডিডাব্লিউ, রয়টার্স, এএফপি

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

গুগলের ৩০০ কোটি টাকা জরিমানা

Update Time : ০১:৩৪:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪

ফ্রান্সের বাজার নজরদারি সংস্থা ইইউ বুদ্ধিবৃত্তিক সম্পত্তি বিষয়ক নিয়ম ও সে দেশের প্রকাশক ও বার্তা সংস্থাগুলোর সঙ্গে চুক্তি লঙ্ঘনের অভিযোগে গুগলকে ২৫০ মিলিয়ন ইউরো (তিনশ কোটি টাকা) জরিমানা করেছে৷

বুধবার প্রযুক্তি সংস্থা অ্যালফাবেটের গুগলকে ফ্রান্সের প্রতিযোগিতা বিষয়ক নজরদারি সংস্থা জরিমানা দিয়েছে৷ গুগল তার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআইনির্ভর চ্যাটবট বার্ডকে, যা পরে নাম বদলে হয় ‘জেমিনি’, প্রকাশক বা বার্তা সংস্থাদের অজান্তে তাদের তথ্যের ওপর প্রশিক্ষণ দিয়েছে৷

২০২২ সালে প্রকাশকদের সাথে গুগলের সমঝোতায় গুগল মোট সাতটি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল৷ এর মধ্যে চারটি ভঙ্গ করেছে বলে অভিযোগ জানাচ্ছে নজরদারি সংস্থাটি৷ প্রকাশকদের কন্টেন্ট গুগল কীভাবে ব্যবহার করবে, সেবিষয়ে প্রকাশকদের অনুমতি না নেওয়ায়, কন্টেন্টের দাম সঠিকভাবে নির্ধারণ করতে পারেননি প্রকাশকরা, অভিযোগ গুগলের বিরুদ্ধে৷

এই জরিমানাকে গুগল অসামঞ্জস্যপূর্ণ বলেছে৷ গুগলের মতে, নজরদারি সংস্থা যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করেনি যেভাবে গুগল বর্তমান পরিস্থিতি, যেখানে ভবিষ্যত কোন দিকে যাবে তা বলা কঠিন, তেমন অবস্থাতেও কাজ করে যাচ্ছে৷ কিন্তু, ‘এখন এগিয়ে যাবার সময়’ বলে এই জরিমানা মেনেও নিয়েছে গুগল৷

এআই যেভাবে প্রকাশক, লেখক বা বার্তা সংস্থাদের কাজ কোনো ধরনের অনুমতি ছাড়াই সংগ্রহ করে, তা ঠেকাতে চাইছেন লেখক-প্রকাশকরা৷ এমন আবহে এই জরিমানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দিচ্ছে৷

মনে করা হচ্ছিল, এই দ্বন্দ্ব ২০২২ সালেই শেষ, যখন এই একই মার্কিন প্রযুক্তি সংস্থা তার বিরুদ্ধে একটি তদন্তের মাধ্যমে ওঠা প্রাথমিক জরিমানার মামলার আপিল ফিরিয়ে নেয়৷ কিন্তু ফ্রান্স একমাত্র ইইউ-রাষ্ট্র নয় যারা গুগলের সংবাদ সংগ্রহের প্রক্রিয়াকে চ্যালেঞ্জ করছে না৷

স্পেনের প্রতিযোগিতা বিষয়ক নজরদারি সংস্থা গত বছর একটি তদন্ত শুরু করে, যার কাজ সংবাদ সংস্থা ও প্রকাশনার কাজে তথাকথিত ‘প্রতিযোগিতাবিরোধী কার্যকলাপের’ কেমন প্রভাব পড়ে, তা দেখা৷

২০২২ সালে জার্মানির নজরদারি সংস্থা গুগলের নিউজ শোকেস পরিষেবাকে ঘিরে একটি তদন্ত বন্ধ করে৷ কারণ, গুগল প্রতিযোগিতামূলক প্রশ্ন যাতে না ওঠে, সে জন্য তার কাজে কিছু ‘গুরুত্বপূর্ণ বদল’ এনেছিল৷

দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস ২০২৩ সালে গুগলের প্রতিদ্বন্দ্বী মাইক্রোসফট ও ওপেনএআইয়ের বিরুদ্ধে মামলা করে৷ তাদের অভিযোগ, অনুমতি ছাড়াই চ্যাটবট প্রযুক্তিকে প্রশিক্ষিত করতে লাখো প্রতিবেদন সংগ্রহ করা হয়েছে৷ সূত্র: ডিডাব্লিউ, রয়টার্স, এএফপি