খুলনার ২ পাটকল শ্রমিক নেতা কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৮:৫৭:১০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ জুলাই ২০২০
  • / ১১৩ Time View

খুলনা প্রতিনিধি:

খুলনার সদ্য বন্ধ করা ক্রিসেন্ট জুট মিলের শ্রমিক ও পাট শিল্প রক্ষা যুব জোটের আহবায়ক অলিয়ার রহমান এবং প্লাটিনাম জুট মিলের শ্রমিক ও যুব জোটের উপদেষ্টা নূর ইসলামের রিমান্ডের আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) দুপুরে মহানগর হাকিম আদালতে পুলিশ ক্যাম্পে হামলা ও ভাঙচুর মামলায় ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দৌলতপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহিনুর রহমান জানান, ২০১৯ সালের ৪ এপ্রিল পাটকল শ্রমিকদের আন্দোলন চলাকালে মহানগরের নতুন রাস্তা মোড়ে শ্রমিকরা পুলিশ ক্যাম্পে হামলা ও ভাঙচুর করেন। হামলায় কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হন। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় পাটকলের ২ শ্রমিক নেতাকে সোমবার বিকেলে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

২ শ্রমিক নেতার পরিবারের অভিযোগ, রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের এই দুইজন শ্রমিক নেতাকে প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিসের লোক পরিচয়ে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। রোববার রাতে তাদের নিজ বাড়ি থেকে তুলে নেওয়া হয়।

নূর ইসলামের ছেলে মো. জুয়েল বলেন, আমাদের বাসায় গভীর রাতে কিছু লোক আসেন। তারা বলতে থাকেন—এই দরজা খুলুন আগুন লেগেছে। তখন আমরা তাদের বলি আপনারা কারা? তারা বলেন—আমরা ফায়ার সার্ভিসের লোক। তারপর চোখের পলকে বাবাকে নিয়ে চলে যায়।

অপরদিকে, অলিয়ার রহমানের ছেলে নাইম শেখ বলেন, নগরীর খানজাহান আলী থানার মশিয়ালী গ্রামের বাড়িতে কয়েকজন লোক এসে প্রশাসনের লোক পরিচয় দিয়ে ঘরের দরজা খুলতে বলেন। তাদের হাতে ওয়ারলেস ও রাইফেল ছিল। আমরা দরজা খুললে তারা জানান, আমার আব্বাকে নিয়ে মিলে যাবেন। আমরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই বাবাকে নিয়ে গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

খুলনার ২ পাটকল শ্রমিক নেতা কারাগারে

Update Time : ০৮:৫৭:১০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ জুলাই ২০২০

খুলনা প্রতিনিধি:

খুলনার সদ্য বন্ধ করা ক্রিসেন্ট জুট মিলের শ্রমিক ও পাট শিল্প রক্ষা যুব জোটের আহবায়ক অলিয়ার রহমান এবং প্লাটিনাম জুট মিলের শ্রমিক ও যুব জোটের উপদেষ্টা নূর ইসলামের রিমান্ডের আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) দুপুরে মহানগর হাকিম আদালতে পুলিশ ক্যাম্পে হামলা ও ভাঙচুর মামলায় ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দৌলতপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহিনুর রহমান জানান, ২০১৯ সালের ৪ এপ্রিল পাটকল শ্রমিকদের আন্দোলন চলাকালে মহানগরের নতুন রাস্তা মোড়ে শ্রমিকরা পুলিশ ক্যাম্পে হামলা ও ভাঙচুর করেন। হামলায় কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হন। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় পাটকলের ২ শ্রমিক নেতাকে সোমবার বিকেলে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

২ শ্রমিক নেতার পরিবারের অভিযোগ, রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের এই দুইজন শ্রমিক নেতাকে প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিসের লোক পরিচয়ে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। রোববার রাতে তাদের নিজ বাড়ি থেকে তুলে নেওয়া হয়।

নূর ইসলামের ছেলে মো. জুয়েল বলেন, আমাদের বাসায় গভীর রাতে কিছু লোক আসেন। তারা বলতে থাকেন—এই দরজা খুলুন আগুন লেগেছে। তখন আমরা তাদের বলি আপনারা কারা? তারা বলেন—আমরা ফায়ার সার্ভিসের লোক। তারপর চোখের পলকে বাবাকে নিয়ে চলে যায়।

অপরদিকে, অলিয়ার রহমানের ছেলে নাইম শেখ বলেন, নগরীর খানজাহান আলী থানার মশিয়ালী গ্রামের বাড়িতে কয়েকজন লোক এসে প্রশাসনের লোক পরিচয় দিয়ে ঘরের দরজা খুলতে বলেন। তাদের হাতে ওয়ারলেস ও রাইফেল ছিল। আমরা দরজা খুললে তারা জানান, আমার আব্বাকে নিয়ে মিলে যাবেন। আমরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই বাবাকে নিয়ে গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়।