খালিশপুরে টিকটকার কিশোর গ্যাংয়ের আতংকে ওয়ার্কশপ মালিক

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৩:৩২:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৬৮ Time View

খুলনা প্রতিনিধিঃ
খালিশপুরের বয়রা মধ্যপাড়ার ওয়ার্কশপ মিস্ত্রি ইমাম বোখারীর কাছে চাঁদা না পেয়ে তার উপর টিকটকার কিশোর গ্যংয়ের সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার আসামীরা জামিনে বের হয়ে বাদীকে মামলা প্রত্যাহার ও প্রাননাশের হুমকি । কিশোর গ্যং সন্ত্রাসীদের হুমকিতে ইমাম বোখারী বাড়ি থেকে বের হতে পারছেন না । খালিশপুর থানা পুলিশের তদন্ত কর্মকর্তাকে মৌখিক ভাবে জানালেও কোন প্রতিকার না পেয়ে আতংকে কাটছে না ইমাম বোখারীর ।
জানাগেছে,খালিশপুর থানাধীন বড় বয়রা মধ্যপাড়ার মসজিদ রোডের নাহার ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপ এর মালিক ইমাম বোখারী । তার প্রতিষ্ঠানে স্থানীয় টিকটকার ও কিশোর গ্যং সদস্যরা বিভিন্ন সময় প্রগ্রামের নাম করে চাঁদা দাবী করে । তাদের ভয়ে প্রথমে কয়েকবার এক হাজার,দেড় হাজার টাকা তিনি চাঁদা দেন । বিপত্তি হয় সর্বশেষ গত ১৯ জানুয়ারী চাঁদা চাইলে তিনি কিশোর গ্যং সদস্যদের পাঁচশত টাকা চাঁদা দেয় । এতে কিশোর গ্যং সদস্যরা তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে তার ওয়ার্কশপ কাম বাড়িতে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করার পাশাপাশী ককটেল বিস্ফোরন করে । ককটেল বিস্ফোরনের ফলে ইমাম বোখারীর বাড়ির জানালার গ্লাস ভেঙ্গে যায়। বোখারী এ ঘটনার প্রতিবাদ করলে কিশোর গ্যংয়ের ১৫/২০ জনের সদস্যরা তার বাড়ির বাউন্ডারী টপকিয়ে তার উপর হামলা চালায় । হামলায় তার মাথায় প্রচন্ড আঘাতে ফ্যাকক্সার হয় এবং হাত ভেঙ্গে দেয়াসহ শরীরের ভিবিন্ন স্থানে নিলা ফোলা জখম হয় । তার স্ত্রী সুরাইয়া আক্তার বাধা দিলে তাকেও প্রহার করে এবং ওয়ার্কশপের ক্যাশে থাকা ৮৩ হাজার টাকা এবং সুরাইয়া আক্তার গলায় থাকা স্বর্নেও চেইন ছিনিয়ে নিয়ে কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায় । সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুতর আহত ইমাম বোখারীকে ভাড়াটিয়া জাকির হোসেন তার পুত্র সুমন হোসেন,নাহিদুল আলম উদ্ধার করে খুমেক হাসপতালে নিয়ে ভর্তি করেন।
এঘটনায় ইমাম বোখারীর স্ত্রী সুরাইয়া আক্তার বাদী হয়ে গত ২১-১-২৪ ইং তারিখ খালিশপুর থানায় একটি হত্যা প্রচেষ্টা মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হলেন বড় বয়রা মধ্যপাড়া জামে মসজিদ রোডের আসাদুল্লার বাড়ির ভাড়াটিয়া হাসুর পুত্র মোঃ সেলিম হোসেন,সাজু,আবু সাইদ, একই এলাকার শওকত হোসেনের পুত্র পলাশ,শিমুল, বয়রা কলেজ পাউন্ডারী রোডের-চৌধুরী বাড়ির ভাড়াটিয়া শহীদের পুত্র মিলন, বড় বয়রা মধ্যপাড়ার আঃ ছালামের পুত্র রিপনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন । যার মামলা নং-৪০/২৪। এব্যাপাের ভুক্তভোগি ইমাম বোখারী বলেন, প্রশাসনের নিকট আমার দাবী এই কিশোর গ্যং সন্ত্রাসীদের দমনে বর্তমান পুলিশ কমিশনার যে অভিযান চালু করেছেন সেটা অব্যাহত রেখে আমার উপর হামলাকারী কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসী ও তাদের নেপথ্যের গডফাদারদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি প্রদান করা হোক ।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

খালিশপুরে টিকটকার কিশোর গ্যাংয়ের আতংকে ওয়ার্কশপ মালিক

Update Time : ০৩:৩২:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

খুলনা প্রতিনিধিঃ
খালিশপুরের বয়রা মধ্যপাড়ার ওয়ার্কশপ মিস্ত্রি ইমাম বোখারীর কাছে চাঁদা না পেয়ে তার উপর টিকটকার কিশোর গ্যংয়ের সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার আসামীরা জামিনে বের হয়ে বাদীকে মামলা প্রত্যাহার ও প্রাননাশের হুমকি । কিশোর গ্যং সন্ত্রাসীদের হুমকিতে ইমাম বোখারী বাড়ি থেকে বের হতে পারছেন না । খালিশপুর থানা পুলিশের তদন্ত কর্মকর্তাকে মৌখিক ভাবে জানালেও কোন প্রতিকার না পেয়ে আতংকে কাটছে না ইমাম বোখারীর ।
জানাগেছে,খালিশপুর থানাধীন বড় বয়রা মধ্যপাড়ার মসজিদ রোডের নাহার ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপ এর মালিক ইমাম বোখারী । তার প্রতিষ্ঠানে স্থানীয় টিকটকার ও কিশোর গ্যং সদস্যরা বিভিন্ন সময় প্রগ্রামের নাম করে চাঁদা দাবী করে । তাদের ভয়ে প্রথমে কয়েকবার এক হাজার,দেড় হাজার টাকা তিনি চাঁদা দেন । বিপত্তি হয় সর্বশেষ গত ১৯ জানুয়ারী চাঁদা চাইলে তিনি কিশোর গ্যং সদস্যদের পাঁচশত টাকা চাঁদা দেয় । এতে কিশোর গ্যং সদস্যরা তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে তার ওয়ার্কশপ কাম বাড়িতে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করার পাশাপাশী ককটেল বিস্ফোরন করে । ককটেল বিস্ফোরনের ফলে ইমাম বোখারীর বাড়ির জানালার গ্লাস ভেঙ্গে যায়। বোখারী এ ঘটনার প্রতিবাদ করলে কিশোর গ্যংয়ের ১৫/২০ জনের সদস্যরা তার বাড়ির বাউন্ডারী টপকিয়ে তার উপর হামলা চালায় । হামলায় তার মাথায় প্রচন্ড আঘাতে ফ্যাকক্সার হয় এবং হাত ভেঙ্গে দেয়াসহ শরীরের ভিবিন্ন স্থানে নিলা ফোলা জখম হয় । তার স্ত্রী সুরাইয়া আক্তার বাধা দিলে তাকেও প্রহার করে এবং ওয়ার্কশপের ক্যাশে থাকা ৮৩ হাজার টাকা এবং সুরাইয়া আক্তার গলায় থাকা স্বর্নেও চেইন ছিনিয়ে নিয়ে কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায় । সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুতর আহত ইমাম বোখারীকে ভাড়াটিয়া জাকির হোসেন তার পুত্র সুমন হোসেন,নাহিদুল আলম উদ্ধার করে খুমেক হাসপতালে নিয়ে ভর্তি করেন।
এঘটনায় ইমাম বোখারীর স্ত্রী সুরাইয়া আক্তার বাদী হয়ে গত ২১-১-২৪ ইং তারিখ খালিশপুর থানায় একটি হত্যা প্রচেষ্টা মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হলেন বড় বয়রা মধ্যপাড়া জামে মসজিদ রোডের আসাদুল্লার বাড়ির ভাড়াটিয়া হাসুর পুত্র মোঃ সেলিম হোসেন,সাজু,আবু সাইদ, একই এলাকার শওকত হোসেনের পুত্র পলাশ,শিমুল, বয়রা কলেজ পাউন্ডারী রোডের-চৌধুরী বাড়ির ভাড়াটিয়া শহীদের পুত্র মিলন, বড় বয়রা মধ্যপাড়ার আঃ ছালামের পুত্র রিপনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন । যার মামলা নং-৪০/২৪। এব্যাপাের ভুক্তভোগি ইমাম বোখারী বলেন, প্রশাসনের নিকট আমার দাবী এই কিশোর গ্যং সন্ত্রাসীদের দমনে বর্তমান পুলিশ কমিশনার যে অভিযান চালু করেছেন সেটা অব্যাহত রেখে আমার উপর হামলাকারী কিশোর গ্যাং সন্ত্রাসী ও তাদের নেপথ্যের গডফাদারদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি প্রদান করা হোক ।