কোটা সংস্কারের দাবিতে যবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ঢাকা-চৌগাছা সড়ক অবরোধ

  • Update Time : ০৮:৫৯:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জুলাই ২০২৪
  • / 35

মোস্তফা গালিব,যবিপ্রবি প্রতিনিধি

সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে দেশব্যাপী ‘বাংলা ব্লকেড’ এর সাথে সংহতি জানিয়ে সড়ক অবরোধ করেছে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) কোটা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। রবিবার (৭ জুলাই) বিকাল তিনটা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ঢাকা-চৌগাছা স্বাধীনতা সড়ক অবরোধ করে আন্দোলনকারী। এর প্রায় ১ ঘন্টা পর বিকাল চারটার দিকে সড়ক অবরোধ তুলে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীন সড়কে মিছিল করে আন্দোলন শেষ হয়। আগামী দিনেও এধরণের কর্মসূচি পালন করা হবে বলে জানান আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা তাদের বক্তব্যে বলেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে আধুনিক বাংলাদেশ গড়তে এমন কোটা প্রথা মানা যায় না। আমরা চাই অবিলম্বে কোটা সংস্কারের মাধ্যমে সকল ক্ষেত্রে মেধাবীদের সুযোগ করে দেওয়া হোক। দেশব্যাপী বাংলা ব্লকেডের সাথে আমরা একাত্মতা প্রকাশ করে সড়ক ব্লক করেছি।

এসময় শিক্ষার্থীরা কোটার বিরুদ্ধে ‘কোটা না মেধা? মেধা মেধা’, আপস না সংগ্রাম, সংগ্রাম সংগ্রাম’, ‘আঠারোর পরিপত্র, পুনর্বহাল করতে হবে’, ‘কোটাপ্রথা নিপাত যাক, মেধাবীরা মুক্তি পাক’, ‘সারা বাংলায় খবর দে, কোটাপ্রথার কবর দে’, ‘আমার সোনার বাংলায়, বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘জেগেছে রে জেগেছে, ছাত্রসমাজ জেগেছে’ ইত্যাদি স্লোগান দেন শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, কোটা সংস্কারের দাবিতে গত শুক্রবার (৫ জুলাই) জুমার নামাজের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মুখ সড়কে বিক্ষোভ করে যবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা এবং রাতে শহীদ মিনার চত্বরে মশাল জ্বালিয়ে মিছিল করে। শনিবার গত (৬ জুলাই) সড়ক অবরোধ করে মিছিল করে। এদিন ৭ জুলাই থেকে ১৩ জুলাই সকল প্রকার ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দেন তাঁরা।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

কোটা সংস্কারের দাবিতে যবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ঢাকা-চৌগাছা সড়ক অবরোধ

Update Time : ০৮:৫৯:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জুলাই ২০২৪

মোস্তফা গালিব,যবিপ্রবি প্রতিনিধি

সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে দেশব্যাপী ‘বাংলা ব্লকেড’ এর সাথে সংহতি জানিয়ে সড়ক অবরোধ করেছে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) কোটা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। রবিবার (৭ জুলাই) বিকাল তিনটা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ঢাকা-চৌগাছা স্বাধীনতা সড়ক অবরোধ করে আন্দোলনকারী। এর প্রায় ১ ঘন্টা পর বিকাল চারটার দিকে সড়ক অবরোধ তুলে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীন সড়কে মিছিল করে আন্দোলন শেষ হয়। আগামী দিনেও এধরণের কর্মসূচি পালন করা হবে বলে জানান আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা তাদের বক্তব্যে বলেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে আধুনিক বাংলাদেশ গড়তে এমন কোটা প্রথা মানা যায় না। আমরা চাই অবিলম্বে কোটা সংস্কারের মাধ্যমে সকল ক্ষেত্রে মেধাবীদের সুযোগ করে দেওয়া হোক। দেশব্যাপী বাংলা ব্লকেডের সাথে আমরা একাত্মতা প্রকাশ করে সড়ক ব্লক করেছি।

এসময় শিক্ষার্থীরা কোটার বিরুদ্ধে ‘কোটা না মেধা? মেধা মেধা’, আপস না সংগ্রাম, সংগ্রাম সংগ্রাম’, ‘আঠারোর পরিপত্র, পুনর্বহাল করতে হবে’, ‘কোটাপ্রথা নিপাত যাক, মেধাবীরা মুক্তি পাক’, ‘সারা বাংলায় খবর দে, কোটাপ্রথার কবর দে’, ‘আমার সোনার বাংলায়, বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘জেগেছে রে জেগেছে, ছাত্রসমাজ জেগেছে’ ইত্যাদি স্লোগান দেন শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, কোটা সংস্কারের দাবিতে গত শুক্রবার (৫ জুলাই) জুমার নামাজের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মুখ সড়কে বিক্ষোভ করে যবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা এবং রাতে শহীদ মিনার চত্বরে মশাল জ্বালিয়ে মিছিল করে। শনিবার গত (৬ জুলাই) সড়ক অবরোধ করে মিছিল করে। এদিন ৭ জুলাই থেকে ১৩ জুলাই সকল প্রকার ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দেন তাঁরা।