কুমিল্লায় অত্যাধুনিক রাইস ট্রান্সপ্লান্টের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৪:২৬:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩
  • / ১৭৪ Time View

সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ,কুমিল্লা

কুমিল্লা সদর দক্ষিণে অত্যাধুনিক রাইস ট্রান্সপ্লান্টের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ করেন কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম।

সোমবার (৩০ শে জানুয়ারি) সকালে সদর দক্ষিণ উপজেলার চৌয়ারা ইউনিয়নে অত্যাধুনিক রাইস ট্রান্সপ্লান্ট কার্যক্রম অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক নিজেই ধানের চারা রোপণ করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ মিজান,নির্বাহী অফিসার শুভাশিস ঘোষ,কৃষি অফিসার মোঃ হাবিবুল বাশার চৌধুরী,ভইস চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাবলু,চৌয়ারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ সোহাগ প্রমুখ।

সদর দক্ষিণ কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়,কুমিল্লা সদর দক্ষিণে ধানের চারা রোপণে রাইস ট্রান্সপ্লান্ট অর্থাৎ যন্ত্রের মাধ্যমে চারা রোপণ এটার আগেও দক্ষিণ রামপুরে শুরু হয়েছে।এই ইউনিয়নের ৬৩ জন কৃষক একত্রিত হয়ে সমবায় ভিত্তিতে সমলয় পদ্ধতিতে ৫০ একর জমিতে বোরো (হাইব্রিড দুর্বার) ধানের আবাদ করার উদ্যোগ নিয়েছেন।

প্রথম পর্যায়ে কৃষকদের কোনো খরচ লাগছে না। ধানবীজসহ সব খরচ কৃষি বিভাগ বহন করছে। কৃষি বিভাগের সার্বিক সহায়তায় কৃষকরা এই নতুন পদ্ধতিতে ধান চাষ করতে পেরে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

কুমিল্লা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ মিজান বলেন,এই পদ্ধতিতে কৃষকের খরচ প্রায় অর্ধেক হবে। সনাতন পদ্ধতিতে যেখানে একর প্রতি ৮ থেকে ১০ হাজার টাকা খরচ হয় সেখানে এই পদ্ধতিতে ৪ থেকে ৫ হাজার টাকা খরচ হবে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

কুমিল্লায় অত্যাধুনিক রাইস ট্রান্সপ্লান্টের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ

Update Time : ০৪:২৬:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩

সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ,কুমিল্লা

কুমিল্লা সদর দক্ষিণে অত্যাধুনিক রাইস ট্রান্সপ্লান্টের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ করেন কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম।

সোমবার (৩০ শে জানুয়ারি) সকালে সদর দক্ষিণ উপজেলার চৌয়ারা ইউনিয়নে অত্যাধুনিক রাইস ট্রান্সপ্লান্ট কার্যক্রম অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক নিজেই ধানের চারা রোপণ করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ মিজান,নির্বাহী অফিসার শুভাশিস ঘোষ,কৃষি অফিসার মোঃ হাবিবুল বাশার চৌধুরী,ভইস চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাবলু,চৌয়ারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ সোহাগ প্রমুখ।

সদর দক্ষিণ কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়,কুমিল্লা সদর দক্ষিণে ধানের চারা রোপণে রাইস ট্রান্সপ্লান্ট অর্থাৎ যন্ত্রের মাধ্যমে চারা রোপণ এটার আগেও দক্ষিণ রামপুরে শুরু হয়েছে।এই ইউনিয়নের ৬৩ জন কৃষক একত্রিত হয়ে সমবায় ভিত্তিতে সমলয় পদ্ধতিতে ৫০ একর জমিতে বোরো (হাইব্রিড দুর্বার) ধানের আবাদ করার উদ্যোগ নিয়েছেন।

প্রথম পর্যায়ে কৃষকদের কোনো খরচ লাগছে না। ধানবীজসহ সব খরচ কৃষি বিভাগ বহন করছে। কৃষি বিভাগের সার্বিক সহায়তায় কৃষকরা এই নতুন পদ্ধতিতে ধান চাষ করতে পেরে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

কুমিল্লা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ মিজান বলেন,এই পদ্ধতিতে কৃষকের খরচ প্রায় অর্ধেক হবে। সনাতন পদ্ধতিতে যেখানে একর প্রতি ৮ থেকে ১০ হাজার টাকা খরচ হয় সেখানে এই পদ্ধতিতে ৪ থেকে ৫ হাজার টাকা খরচ হবে।