কুমিল্লায় টাকার বিনিময়ে স্ত্রীকে তিন ধর্ষকের হাতে তুলে দিলেন স্বামী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১২:৪০:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪
  • / ২৯ Time View

সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ,কুমিল্লা

৫ হাজার টাকার বিনিময়ে স্ত্রীকে তিন ধর্ষকের হাতে তুলে দিয়েছেন আবুল খায়ের নামের এক স্বামী। পরে ওই নারীকে ফসলি জমির গভীর নলকূপের ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে তিন জন।

গত বুধবার (১৭ এপ্রিল) জেলার বরুড়া উপজেলার শাকপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) এঘটনায় ভুক্তভোগী নারী থানায় এসে অভিযোগ জানালে ৩ জনকে আটক করে বরুড়া থানা পুলিশ। তারা হলেন- বরুড়া উপজেলার শাকপুর এলাকার মাদক কারবারি নূরু, মনির এবং মহিন।

বরুড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ উদ্দিন চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, শাকপুর এলাকার তাজুল ইসলামের ছেলে আবুল খায়ের একজন মাদকাসক্ত। গত বুধবার মাদক সেবনের টাকা না থাকায় একই এলাকার মাদক কারবারি নূরু, মনির ও মাহিনের কাছে মাত্র ৫ হাজার টাকায় বন্ধক রেখে মাদকের টাকা জোগাড় করেন স্বামী আবুল খায়ের। পরে বন্ধক নিয়ে ওই নারীকে ফসলি জমির গভীর নলকূপের ঘরে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন নূরু, মনির ও মাহিন।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী তার পরিবারের লোকজন নিয়ে বরুড়া থানায় এসে অভিযোগ জানালে পুলিশ শুক্রবার অভিযান চালিয়ে ৩ জনকে আটক করে।

বরুড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আসামিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। এখন স্বামী পলাতক আছে। তাকে খোঁজে ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

কুমিল্লায় টাকার বিনিময়ে স্ত্রীকে তিন ধর্ষকের হাতে তুলে দিলেন স্বামী

Update Time : ১২:৪০:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ,কুমিল্লা

৫ হাজার টাকার বিনিময়ে স্ত্রীকে তিন ধর্ষকের হাতে তুলে দিয়েছেন আবুল খায়ের নামের এক স্বামী। পরে ওই নারীকে ফসলি জমির গভীর নলকূপের ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে তিন জন।

গত বুধবার (১৭ এপ্রিল) জেলার বরুড়া উপজেলার শাকপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) এঘটনায় ভুক্তভোগী নারী থানায় এসে অভিযোগ জানালে ৩ জনকে আটক করে বরুড়া থানা পুলিশ। তারা হলেন- বরুড়া উপজেলার শাকপুর এলাকার মাদক কারবারি নূরু, মনির এবং মহিন।

বরুড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ উদ্দিন চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, শাকপুর এলাকার তাজুল ইসলামের ছেলে আবুল খায়ের একজন মাদকাসক্ত। গত বুধবার মাদক সেবনের টাকা না থাকায় একই এলাকার মাদক কারবারি নূরু, মনির ও মাহিনের কাছে মাত্র ৫ হাজার টাকায় বন্ধক রেখে মাদকের টাকা জোগাড় করেন স্বামী আবুল খায়ের। পরে বন্ধক নিয়ে ওই নারীকে ফসলি জমির গভীর নলকূপের ঘরে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন নূরু, মনির ও মাহিন।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী তার পরিবারের লোকজন নিয়ে বরুড়া থানায় এসে অভিযোগ জানালে পুলিশ শুক্রবার অভিযান চালিয়ে ৩ জনকে আটক করে।

বরুড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আসামিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। এখন স্বামী পলাতক আছে। তাকে খোঁজে ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে।