কুমিল্লায় কীটনাশকযুক্ত পানি পানে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১২:৪১:৫৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪
  • / ২১ Time View

সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ, কুমিল্লা
কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার জগন্নাথপুর এলাকায় এক শিশুর কীটনাশকযুক্ত পানি পানে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। নিহত শিশুর নাম ফাহাদ (৯)। সে জগন্নাথপুর এলাকার মনির হোসেনের ছেলে এবং জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্র।

সোমবার (১৩ মে) সকাল সাড়ে আটটায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। জগন্নাথপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশিদ মামুন এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, জগন্নাথপুর গ্রামের আইয়ুব আলী নামের এক ব্যক্তি পুকুরে মাছ চাষ করে আসছিলেন। তিনি গত রাতে পুকুরে মাছ ধরার জন্য শক্তিশালী কীটনাশক প্রয়োগ করেন। সকালে পুকুরে মাছ ভাসতে দেখে স্থানীয় লোকজন মাছ ধরতে নেমে পড়ে। এই সময় ফাহাদও মাছ ধরতে নেমেছিল। পানিতে ডুবে যাওয়ার সময় সে বিষাক্ত পানি পান করে ফেলে এবং গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। উপস্থিত লোকজন তাকে দ্রুত কুমিল্লা হাসপাতালে নিয়ে যায়, যেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত ফাহাদের মা সায়িদা বেগম বলেন, “আমার ছেলে মাদ্রাসা থেকে এসে পুকুরে মাছ ধরতে গেলে আমি তার পিছে পিছে যাওয়ার ৪-৫ মিনিটের মধ্যে তাকে না দেখতে পেরে খোঁজাখুজি শুরু করি। পরবর্তীতে তাকে পুকুরে পাওয়া যায়। সাথে সাথে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই। আমার ছেলেরে আমি এখন কই পামু।”

পুকুর লিজ নেওয়া আইয়ুব আলী বলেন, “আমি মাছ ভেসে উঠার জন্য ট্যাবলেট প্রয়োগ করেছিলাম। সকালে মাছগুলো উঠিয়ে নিবো সেইজন্য। মাছ ভাসতে দেখে এলাকার মানুষ সেখানে নেমে পড়ে।”

কোতওয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ ফিরোজ হোসেন বলেন, “আমি ঘটনাটি এইমাত্র শুনেছি। আমি সেখানে পুলিশ পাঠাচ্ছি।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

কুমিল্লায় কীটনাশকযুক্ত পানি পানে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু

Update Time : ১২:৪১:৫৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪

সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ, কুমিল্লা
কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার জগন্নাথপুর এলাকায় এক শিশুর কীটনাশকযুক্ত পানি পানে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। নিহত শিশুর নাম ফাহাদ (৯)। সে জগন্নাথপুর এলাকার মনির হোসেনের ছেলে এবং জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্র।

সোমবার (১৩ মে) সকাল সাড়ে আটটায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। জগন্নাথপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশিদ মামুন এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, জগন্নাথপুর গ্রামের আইয়ুব আলী নামের এক ব্যক্তি পুকুরে মাছ চাষ করে আসছিলেন। তিনি গত রাতে পুকুরে মাছ ধরার জন্য শক্তিশালী কীটনাশক প্রয়োগ করেন। সকালে পুকুরে মাছ ভাসতে দেখে স্থানীয় লোকজন মাছ ধরতে নেমে পড়ে। এই সময় ফাহাদও মাছ ধরতে নেমেছিল। পানিতে ডুবে যাওয়ার সময় সে বিষাক্ত পানি পান করে ফেলে এবং গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। উপস্থিত লোকজন তাকে দ্রুত কুমিল্লা হাসপাতালে নিয়ে যায়, যেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত ফাহাদের মা সায়িদা বেগম বলেন, “আমার ছেলে মাদ্রাসা থেকে এসে পুকুরে মাছ ধরতে গেলে আমি তার পিছে পিছে যাওয়ার ৪-৫ মিনিটের মধ্যে তাকে না দেখতে পেরে খোঁজাখুজি শুরু করি। পরবর্তীতে তাকে পুকুরে পাওয়া যায়। সাথে সাথে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাই। আমার ছেলেরে আমি এখন কই পামু।”

পুকুর লিজ নেওয়া আইয়ুব আলী বলেন, “আমি মাছ ভেসে উঠার জন্য ট্যাবলেট প্রয়োগ করেছিলাম। সকালে মাছগুলো উঠিয়ে নিবো সেইজন্য। মাছ ভাসতে দেখে এলাকার মানুষ সেখানে নেমে পড়ে।”

কোতওয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ ফিরোজ হোসেন বলেন, “আমি ঘটনাটি এইমাত্র শুনেছি। আমি সেখানে পুলিশ পাঠাচ্ছি।