কউকের অনুমোদনহীন ভবনে উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৩:৫৭:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪
  • / 21

কক্সবাজার প্রতিনিধি :

কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কউক) কর্তৃক যাচাই-বাচাইকরনের মাধ্যমে নিয়মিত ভবনের নকশা অনুমোদন দেওয়া হয়। তবুও কক্সবাজার শহরে অপরিকল্পিত ভাবে গড়ে উঠে চলেছে নকশাবহির্ভূত অনুমোদনহীন ভবন। আর এসব অনুমোদনহীন ভবনের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত রেখেছে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কউক)।

মঙ্গলবার (৪ জুন), দুপুরে কক্সবাজার পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের উত্তর তারাবনিয়ারছড়ায় আরো ৩ টি ভবনের উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে ।

সেইসময়,শহরের তারাবনিয়ারছড়ায় অবস্থিত পুরাতন খুরুশকুল ব্রিজ রোডস্হ শহিদুল হক এবং ওবাইদুল হকের পাশাপাশি অবস্থিত ভবনের ব্যত্যয়কৃত আংশিক অংশ ভেঙ্গে দেওয়া হয়।
সেসাথে ভবন মালিক আজিজুল হকের অনুমোদনহীন নির্মিত স্হাপনার কিছু অংশ ভেঙ্গে দেওয়া হয়।
এ-সময় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা নেতৃত্ব দেন
কউক সচিব ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবুল হাশেম।
পর্যটন নগরী কক্সবাজারকে পর্যটন উপযোগী, বসবাসযোগ্য শহরে পরিনত করার লক্ষ্যে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক এধরনের অভিযান নিয়মিত চলবে বলে জানান তিনি।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

কউকের অনুমোদনহীন ভবনে উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত

Update Time : ০৩:৫৭:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪

কক্সবাজার প্রতিনিধি :

কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কউক) কর্তৃক যাচাই-বাচাইকরনের মাধ্যমে নিয়মিত ভবনের নকশা অনুমোদন দেওয়া হয়। তবুও কক্সবাজার শহরে অপরিকল্পিত ভাবে গড়ে উঠে চলেছে নকশাবহির্ভূত অনুমোদনহীন ভবন। আর এসব অনুমোদনহীন ভবনের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত রেখেছে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কউক)।

মঙ্গলবার (৪ জুন), দুপুরে কক্সবাজার পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের উত্তর তারাবনিয়ারছড়ায় আরো ৩ টি ভবনের উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে ।

সেইসময়,শহরের তারাবনিয়ারছড়ায় অবস্থিত পুরাতন খুরুশকুল ব্রিজ রোডস্হ শহিদুল হক এবং ওবাইদুল হকের পাশাপাশি অবস্থিত ভবনের ব্যত্যয়কৃত আংশিক অংশ ভেঙ্গে দেওয়া হয়।
সেসাথে ভবন মালিক আজিজুল হকের অনুমোদনহীন নির্মিত স্হাপনার কিছু অংশ ভেঙ্গে দেওয়া হয়।
এ-সময় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা নেতৃত্ব দেন
কউক সচিব ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবুল হাশেম।
পর্যটন নগরী কক্সবাজারকে পর্যটন উপযোগী, বসবাসযোগ্য শহরে পরিনত করার লক্ষ্যে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক এধরনের অভিযান নিয়মিত চলবে বলে জানান তিনি।