এবার ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি কুবি শিক্ষার্থীর

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১০:৩২:৪৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০২৪
  • / ১৭ Time View

কুবি সংবাদদাতা:

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শিক্ষার্থীর ধর্ম অবমাননার রেষ কাটতে না কাটতে এবার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি করেছেন সনাতন বিদ্যার্থী সংসদ বাংলাদেশের কার্যনির্বাহী সংসদ ২০২৩-২৪ এর প্রচার সম্পাদক স্বপ্নীল মুখার্জি। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও মুসলিম শিক্ষার্থীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবার স্কাউট থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

জানা যায়, ধর্ম অবমাননাকারী সনাতন ধর্মালম্বী শিক্ষার্থী স্বপ্নীলের বাড়ি যশোরের কেশবপুরে। তিনি পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের ২০২১-২২ বর্ষের শিক্ষার্থী।

কয়েকটি ফেসবুক পোস্ট থেকে জানা যায়, তার ফেসবুক আইডি থেকে গত ২০শে ফেব্রুয়ারি ছোটদের বর্ণমালা শেখার বইয়ের একটি পৃষ্ঠার ছবি। যেখানে একটি গিটারের ছবিসহ লিখা আছে গ-তে ‘গান বাজনা ভালো নই। ছবিটি নিয়ে “ছবি তো গিটারের, গান কীভাবে আসলো? ছবি কই আকছে। এটা তো রং করছে। আতশবাজি ফোটানোর সাথে রং তামাশার সম্পর্ক কি”? স্টাটাস দিয়ে পোস্ট করেন।

পরে ফেসবুক পোস্টে আসিফ আহমদ নামের এক ব্যক্তির মতামতের উত্তরে মহানবী (স.) ও ইসলাম ধর্মীয় যুদ্ধ নিয়ে কটাক্ষ করেছেন। সেখানে তিনি বলেন, ”হযরত যেখানে যেত সেখানেই যুদ্ধ করত। বদর না ফদর আরো কত কি নাম আছে। এলাকার মানুষগুলোকে একটা দিনও শান্তি দেয় নি”। তিনি একই ব্যক্তিকে মেনশন করে আরো মন্তব্য করেন, “এ জন্যই মুসলিমদের সাথে কথা বলি না কারণ তাদের ব্রেইন নাই। আফগানিস্তান নিয়ে কথা বলতে বলতে হিন্দুধর্মের দেবতা টেনে নিয়ে এসে বলে টপিকের মাঝে থাকতে।”

তার বিরুদ্ধে পূর্বে ইসলাম ধর্মকে নিয়ে বিভিন্ন কটুক্তি মূলক পোস্ট ও কমেন্ট করার অভিযোগ করেছে শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা বলছেন, প্রতিবার সে ক্ষমা চাইতেন। কিন্তু পূনরায় সে ইসলাম ধর্মকে অবমাননা করা হয় এমন পোস্ট ও কমেন্ট করতেন।

অবমাননার বিষয়ে ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিভাগের ২০২০-২১ বর্ষের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম বলেন, সে ফেসবুক পোষ্ট ও কমেন্টে যা লিখেছে সেখানে সরাসরি মহানবী (স.) ও ইসলাম ধর্মকে ব্যঙ্গ করা হয়েছে। এর আগেও সে ধর্ম নিয়ে এমন উস্কানিমূলক ও কটুক্তি করেছে। একজন মুসলিম হিসেবএ আমি এর প্রতিবাদ জানাই ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তার বহিষ্কার চাই। সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বরাবর তার বিরুদ্ধে অভিযোগনামা দেওয়া হবে।

তার এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।
সেখানে রোমান সরকার নামে একজন লিখেছেন, ‘সে দীর্ঘদিন ধরে বহুবার মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.) ও ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আসছে। তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি ও বহিষ্কার চাই।’

এদিকে তার বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে রোভার স্কাউটস থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় রোভার স্কাউটস এর সিনিয়র রোভারমেট তোফাজ্জল হোসেন।

এ বিষয়ে প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) কাজী ওমর সিদ্দিকী বলেন, আমি ফেসবুকে বিষয়টি দেখেছি। এটা যেহেতু ধর্মীয় ইস্যু আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে অবগত করে রেখেছি। যখন লিখিত অভিযোগ পাবো তখন তদন্ত করে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আমাদের কাছে এখনো লিখিত কোনো অভিযোগ আসেনি। তবে আমরা আগামীকাল প্রক্টোরিয়াল বডি বসবো। তার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত করা হবে। যদি সত্যতা প্রমাণিত হয়, তাহলে সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিষয়ে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. সজল চন্দ্র মজুমদার বলেন, এ ব্যাপারে আমি অবগত না। তবে একজন শিক্ষার্থী হিসেবে সে ধর্ম অবমাননা করতে পারে না। তবে অবমাননার অভিযোগ প্রমাণিত হলে বিভাগ থেকে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয় না, প্রশাসন থেকে পদক্ষেপ নিবে।

সনাতন বিদ্যার্থী সংসদ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে শাখার সাধারণ সম্পাদক শ্রী দ্বীপ চৌধুরী বলে, স্বপ্নীল খুবই নিন্দনীয় কাজ করেছে। একজন মহান ব্যক্তি নিয়ে সে এই ধরনের কথা বলতে পারে না। আমাদের সংগঠন মানুষকে নিন্দা করা সমর্থন করে না। তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে তা যদি সত্য প্রমাণিত হয় তাহলে আমাদের সংগঠনের কেন্দ্র থেকে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

ধর্মীয় অবমাননা কারণ জানতে তাকে একাধিক বার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রতিবেদকের নম্বর ব্লক করে দেন।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

এবার ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি কুবি শিক্ষার্থীর

Update Time : ১০:৩২:৪৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০২৪

কুবি সংবাদদাতা:

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শিক্ষার্থীর ধর্ম অবমাননার রেষ কাটতে না কাটতে এবার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি করেছেন সনাতন বিদ্যার্থী সংসদ বাংলাদেশের কার্যনির্বাহী সংসদ ২০২৩-২৪ এর প্রচার সম্পাদক স্বপ্নীল মুখার্জি। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও মুসলিম শিক্ষার্থীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবার স্কাউট থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

জানা যায়, ধর্ম অবমাননাকারী সনাতন ধর্মালম্বী শিক্ষার্থী স্বপ্নীলের বাড়ি যশোরের কেশবপুরে। তিনি পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের ২০২১-২২ বর্ষের শিক্ষার্থী।

কয়েকটি ফেসবুক পোস্ট থেকে জানা যায়, তার ফেসবুক আইডি থেকে গত ২০শে ফেব্রুয়ারি ছোটদের বর্ণমালা শেখার বইয়ের একটি পৃষ্ঠার ছবি। যেখানে একটি গিটারের ছবিসহ লিখা আছে গ-তে ‘গান বাজনা ভালো নই। ছবিটি নিয়ে “ছবি তো গিটারের, গান কীভাবে আসলো? ছবি কই আকছে। এটা তো রং করছে। আতশবাজি ফোটানোর সাথে রং তামাশার সম্পর্ক কি”? স্টাটাস দিয়ে পোস্ট করেন।

পরে ফেসবুক পোস্টে আসিফ আহমদ নামের এক ব্যক্তির মতামতের উত্তরে মহানবী (স.) ও ইসলাম ধর্মীয় যুদ্ধ নিয়ে কটাক্ষ করেছেন। সেখানে তিনি বলেন, ”হযরত যেখানে যেত সেখানেই যুদ্ধ করত। বদর না ফদর আরো কত কি নাম আছে। এলাকার মানুষগুলোকে একটা দিনও শান্তি দেয় নি”। তিনি একই ব্যক্তিকে মেনশন করে আরো মন্তব্য করেন, “এ জন্যই মুসলিমদের সাথে কথা বলি না কারণ তাদের ব্রেইন নাই। আফগানিস্তান নিয়ে কথা বলতে বলতে হিন্দুধর্মের দেবতা টেনে নিয়ে এসে বলে টপিকের মাঝে থাকতে।”

তার বিরুদ্ধে পূর্বে ইসলাম ধর্মকে নিয়ে বিভিন্ন কটুক্তি মূলক পোস্ট ও কমেন্ট করার অভিযোগ করেছে শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীরা বলছেন, প্রতিবার সে ক্ষমা চাইতেন। কিন্তু পূনরায় সে ইসলাম ধর্মকে অবমাননা করা হয় এমন পোস্ট ও কমেন্ট করতেন।

অবমাননার বিষয়ে ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিভাগের ২০২০-২১ বর্ষের শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম বলেন, সে ফেসবুক পোষ্ট ও কমেন্টে যা লিখেছে সেখানে সরাসরি মহানবী (স.) ও ইসলাম ধর্মকে ব্যঙ্গ করা হয়েছে। এর আগেও সে ধর্ম নিয়ে এমন উস্কানিমূলক ও কটুক্তি করেছে। একজন মুসলিম হিসেবএ আমি এর প্রতিবাদ জানাই ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তার বহিষ্কার চাই। সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বরাবর তার বিরুদ্ধে অভিযোগনামা দেওয়া হবে।

তার এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।
সেখানে রোমান সরকার নামে একজন লিখেছেন, ‘সে দীর্ঘদিন ধরে বহুবার মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.) ও ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আসছে। তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি ও বহিষ্কার চাই।’

এদিকে তার বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে রোভার স্কাউটস থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় রোভার স্কাউটস এর সিনিয়র রোভারমেট তোফাজ্জল হোসেন।

এ বিষয়ে প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) কাজী ওমর সিদ্দিকী বলেন, আমি ফেসবুকে বিষয়টি দেখেছি। এটা যেহেতু ধর্মীয় ইস্যু আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে অবগত করে রেখেছি। যখন লিখিত অভিযোগ পাবো তখন তদন্ত করে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আমাদের কাছে এখনো লিখিত কোনো অভিযোগ আসেনি। তবে আমরা আগামীকাল প্রক্টোরিয়াল বডি বসবো। তার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত করা হবে। যদি সত্যতা প্রমাণিত হয়, তাহলে সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিষয়ে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. সজল চন্দ্র মজুমদার বলেন, এ ব্যাপারে আমি অবগত না। তবে একজন শিক্ষার্থী হিসেবে সে ধর্ম অবমাননা করতে পারে না। তবে অবমাননার অভিযোগ প্রমাণিত হলে বিভাগ থেকে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয় না, প্রশাসন থেকে পদক্ষেপ নিবে।

সনাতন বিদ্যার্থী সংসদ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে শাখার সাধারণ সম্পাদক শ্রী দ্বীপ চৌধুরী বলে, স্বপ্নীল খুবই নিন্দনীয় কাজ করেছে। একজন মহান ব্যক্তি নিয়ে সে এই ধরনের কথা বলতে পারে না। আমাদের সংগঠন মানুষকে নিন্দা করা সমর্থন করে না। তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে তা যদি সত্য প্রমাণিত হয় তাহলে আমাদের সংগঠনের কেন্দ্র থেকে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

ধর্মীয় অবমাননা কারণ জানতে তাকে একাধিক বার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রতিবেদকের নম্বর ব্লক করে দেন।