একসঙ্গে ১৪টি ভলভো বাস কীভাবে পুড়লো এটি সন্দেহের: পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৫:১৯:৩৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪
  • / ২৯ Time View

রাজধানীর ডেমরায় গ্যারেজে দাঁড়িয়ে থাকা লন্ডন এক্সপ্রেসের ১৪টি ভলভো বাস আগুনে পুড়ে যাওয়ার ঘটনাটি নাশকতা কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। পুলিশ বলছে, দুর্ঘটনা হলে এক থেকে দুটি বাস পুড়তো, কিন্তু সারিবদ্ধভাবে থাকা একসঙ্গে ১৪টি দামি ভলভো বাস কীভাবে পুড়লো! সেটা সন্দেহের উদ্রেক তৈরি করে।

সোমবার (১ এপ্রিল) রাতে ঢাকা ডিএমপির ওয়ারী বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. ইকবাল হোসেন এসব কথা জানান।

মো. ইকবাল হোসেন বলেন, রাজধানীর ডেমরায় ধার্মিকপাড়ায় গ্যারেজে দাঁড়িয়ে থাকা বাসে আগুন ধরে যায়। মুহূর্তেই চারদিকে আগুন ছড়িয়ে একে একে ১৪টি বাস পুড়ে যায়। প্রাথমিকভাবে যতটুকু জানা গেছে, ওই গ্যারেজে দাঁড়িয়ে থাকা একটি বাসে আগুনের পর ১৪টি বাসে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনাটি নাশকতা কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে ওয়ারী বিভাগের ডিসি ইকবাল হোসেন বলেন, দুর্ঘটনা নাকি নাশকতা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। পুলিশ ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে। একসঙ্গে এতগুলো বাস আগুনে পুড়ে যাওয়ার বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখা হবে।

এর আগে, সোমবার (১ এপ্রিল) রাত ৮টা ৫০ মিনিটে আগুন লাগার খবর পায় ফায়ার সার্ভিস। এরপর ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট ৯টা ৪৮ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার রাশেদ দিন খালিদ জানান, রাজধানীর ডেমরার কোনাপাড়ার ধার্মিকপাড়ায় গ্যারেজে থাকা ভলভো বাসে আগুন লাগার খবর আসে। খবর পেয়ে প্রথমে আগুন নিয়ন্ত্রণে ডেমরা ফায়ার স্টেশনের দুটি ইউনিট ও পরে সিদ্দিকবাজার থেকে আরও তিনটি ইউনিট যোগ দেয়। রাত ৯টা ৪৮ মিনিটে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে আগুনের ঘটনায় লন্ডন এক্সপ্রেসের ১৪টি ভলভো বাস পুড়ে গেছে।

প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির কোনো খবর জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের এ কর্মকর্তা।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

একসঙ্গে ১৪টি ভলভো বাস কীভাবে পুড়লো এটি সন্দেহের: পুলিশ

Update Time : ০৫:১৯:৩৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪

রাজধানীর ডেমরায় গ্যারেজে দাঁড়িয়ে থাকা লন্ডন এক্সপ্রেসের ১৪টি ভলভো বাস আগুনে পুড়ে যাওয়ার ঘটনাটি নাশকতা কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। পুলিশ বলছে, দুর্ঘটনা হলে এক থেকে দুটি বাস পুড়তো, কিন্তু সারিবদ্ধভাবে থাকা একসঙ্গে ১৪টি দামি ভলভো বাস কীভাবে পুড়লো! সেটা সন্দেহের উদ্রেক তৈরি করে।

সোমবার (১ এপ্রিল) রাতে ঢাকা ডিএমপির ওয়ারী বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. ইকবাল হোসেন এসব কথা জানান।

মো. ইকবাল হোসেন বলেন, রাজধানীর ডেমরায় ধার্মিকপাড়ায় গ্যারেজে দাঁড়িয়ে থাকা বাসে আগুন ধরে যায়। মুহূর্তেই চারদিকে আগুন ছড়িয়ে একে একে ১৪টি বাস পুড়ে যায়। প্রাথমিকভাবে যতটুকু জানা গেছে, ওই গ্যারেজে দাঁড়িয়ে থাকা একটি বাসে আগুনের পর ১৪টি বাসে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনাটি নাশকতা কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে ওয়ারী বিভাগের ডিসি ইকবাল হোসেন বলেন, দুর্ঘটনা নাকি নাশকতা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। পুলিশ ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছে। একসঙ্গে এতগুলো বাস আগুনে পুড়ে যাওয়ার বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখা হবে।

এর আগে, সোমবার (১ এপ্রিল) রাত ৮টা ৫০ মিনিটে আগুন লাগার খবর পায় ফায়ার সার্ভিস। এরপর ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট ৯টা ৪৮ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার রাশেদ দিন খালিদ জানান, রাজধানীর ডেমরার কোনাপাড়ার ধার্মিকপাড়ায় গ্যারেজে থাকা ভলভো বাসে আগুন লাগার খবর আসে। খবর পেয়ে প্রথমে আগুন নিয়ন্ত্রণে ডেমরা ফায়ার স্টেশনের দুটি ইউনিট ও পরে সিদ্দিকবাজার থেকে আরও তিনটি ইউনিট যোগ দেয়। রাত ৯টা ৪৮ মিনিটে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে আগুনের ঘটনায় লন্ডন এক্সপ্রেসের ১৪টি ভলভো বাস পুড়ে গেছে।

প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির কোনো খবর জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের এ কর্মকর্তা।