উপজেলা নির্বাচন জনগণের সাথে প্রতারণা করার নির্বাচন: রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০২:২৪:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪
  • / ১১ Time View

উপজেলা নির্বাচন সম্পূর্ণ ভূয়া ও জালিয়াতির নির্বাচন উল্লেখ করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, এই নির্বাচনে জনগণের কোন ভূমিকা নেই। এ নির্বাচন জনগণের সাথে প্রতারণা করার নির্বাচন।

বৃহস্পতিবার উপজেলা নির্বাচন বর্জনের সমর্থনে রাজধানীর শান্তিনগর বাজার এলাকায় সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

ক্ষমতাসীনরা দখলদার সরকার এমন অভিযোগ করে বিএনপির মুখপাত্র বলেন, এদের জনগণের কোন ম্যান্ডেড নেই, এরা জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধি নয়। তাই এদের জনগণের ভোটের কোন প্রয়োজন পড়ে না। প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা যাকে পছন্দ করবেন, তিনি হবেন উপজেলা চেয়ারম্যান। এখানে নির্বাচনের নামে শুধুমাত্র আনুষ্ঠানিকতা, শুধুমাত্র একটা প্রহসন। সরকার বাংলাদেশকে একটি লুটপাটের দেশ বানাতে চাচ্ছে।

দেশ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করছেন কারা এমন প্রশ্ন রেখে রিজভী বলেন, এরা আওয়ামী লীগের লোক, ক্ষমতাসীন দলের আত্মীয়-স্বজন। আজকে দুবাইয়ে ৩৯৪ টি বাড়ির খবর পাওয়া গেছে। প্রকল্প ব্যাংক পদ্মা সেতু লুটের টাকা দিয়েই তারা আজ বিদেশে বাড়ি করছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের ভিতরে কী হচ্ছে তাদের সে মানুষকে জানতে দেয়া হচ্ছে না। ব্যাংকে ঢুকতে সাংবাদিকদের উপর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। সাংবাদিকরা ঢুকে যাতে কোন তথ্য জানতে না পারে সেই ব্যবস্থা করেছে ব্যাংক।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

উপজেলা নির্বাচন জনগণের সাথে প্রতারণা করার নির্বাচন: রিজভী

Update Time : ০২:২৪:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪

উপজেলা নির্বাচন সম্পূর্ণ ভূয়া ও জালিয়াতির নির্বাচন উল্লেখ করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, এই নির্বাচনে জনগণের কোন ভূমিকা নেই। এ নির্বাচন জনগণের সাথে প্রতারণা করার নির্বাচন।

বৃহস্পতিবার উপজেলা নির্বাচন বর্জনের সমর্থনে রাজধানীর শান্তিনগর বাজার এলাকায় সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

ক্ষমতাসীনরা দখলদার সরকার এমন অভিযোগ করে বিএনপির মুখপাত্র বলেন, এদের জনগণের কোন ম্যান্ডেড নেই, এরা জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধি নয়। তাই এদের জনগণের ভোটের কোন প্রয়োজন পড়ে না। প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা যাকে পছন্দ করবেন, তিনি হবেন উপজেলা চেয়ারম্যান। এখানে নির্বাচনের নামে শুধুমাত্র আনুষ্ঠানিকতা, শুধুমাত্র একটা প্রহসন। সরকার বাংলাদেশকে একটি লুটপাটের দেশ বানাতে চাচ্ছে।

দেশ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করছেন কারা এমন প্রশ্ন রেখে রিজভী বলেন, এরা আওয়ামী লীগের লোক, ক্ষমতাসীন দলের আত্মীয়-স্বজন। আজকে দুবাইয়ে ৩৯৪ টি বাড়ির খবর পাওয়া গেছে। প্রকল্প ব্যাংক পদ্মা সেতু লুটের টাকা দিয়েই তারা আজ বিদেশে বাড়ি করছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের ভিতরে কী হচ্ছে তাদের সে মানুষকে জানতে দেয়া হচ্ছে না। ব্যাংকে ঢুকতে সাংবাদিকদের উপর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। সাংবাদিকরা ঢুকে যাতে কোন তথ্য জানতে না পারে সেই ব্যবস্থা করেছে ব্যাংক।