উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার দাবিতে রাণীশংকৈলে বিএনপি’র কর্মীসভা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০২:৫১:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪
  • / ১৯ Time View

হুমায়ুন কবির,
রাণীশংকৈল(ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ

দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বুধবার(১৫ মে) সন্ধ্যায় পৌরশহরের বিএনপি’র দলীয় কার্যালয়ে প্রহসনের নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার দাবিতে উপজেলা বিএনপি’র আয়োজনে এক কর্মীসভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় উপজেলা বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নূর নবীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন,বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ছোট ভাই,কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমীন।তিনি বলেন, এই অবৈধ সরকারের আমলে আমরা ১৫ বছর ধরে নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছি।
গায়েবী মামলা,জ্বালাও পোড়াওসহ বিভিন হামলা- মামলা দিয়ে আমাদের দমিয়ে রাখা হয়েছে। বর্তমানে আমাদের সন্তানদের চাকুরী হয়না। তাই আওয়ামী লীগ আমাদের কখনো বন্ধু হতে পারেনা।
এ পাতানো নির্বাচন আমরা বর্জন করেছি। আপনারা কেউ ভোট কেন্দ্রে যাবেন না মানুষকেও ভোট কেন্দ্রে যেতে নিরুসাহিত করবেন। তিনি আরো বলেন, যারা সঠিক সিদ্ধান্ত মানবেন না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
সভায় উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আল্লামা আল ওয়াদুদ বিন নূর আলীফের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি নুর আলম,সাংগঠনিক সম্পাদক জাফরুল্লাহ, পৌর সভাপতি অধ্যাপক শাহাজান আলী প্রমুখ।
এছাড়াও বিএনপি ও তার সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন নেতাকর্মী ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।
নির্বাচন প্রসঙ্গে রাণীশংকৈল উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নূর নবী বলেন, আমরা এই লোক দেখানো নির্বাচন মানিনা। আমাদের নেতাকর্মীদের মাঝে মিটিং ও লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। যেন তারা নির্বাচনে ভোট দিতে যেতে না পারে। এ ব্যাপারে সকলকে ঐক্যবন্ধ হবার আহ্বান জানান তিনি।
পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মহসিন আলী বলেন, আমাদের কোন নেতাকর্মী ভোট দিতে যাবেনা। আমরা সেই ব্যবস্থা নিচ্ছি। আলোচনা শেষে জেলা সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমীন দখলদার আওয়ামী সরকারের প্রতারণামূলক ডামি উপজেলা নির্বাচন বর্জনের দাবিতে লিফলেট বিতরণ করেন। এ সময় ৮টি ইউনিয়ন, ১টি পৌরসভার সভাপতি সম্পাদকদের মধ্যে বেশির ভাগ নেতা অনুপস্থিত ছিলেন। এদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে মর্মেও তিনি জানান।
প্রসঙ্গত: রাণীশংকৈল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন মহিলা সংরক্ষিত আসন ( মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান) পদে ৪ জন সহ ৩টি পদে মোট ১২ জন প্রতিদ্বনাদ্বীতা করছেন। এর মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান পদে পৌর বিএনপির নেতা হযরত আলী ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করায় তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আগামী ২১ মে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার দাবিতে রাণীশংকৈলে বিএনপি’র কর্মীসভা

Update Time : ০২:৫১:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪

হুমায়ুন কবির,
রাণীশংকৈল(ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ

দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বুধবার(১৫ মে) সন্ধ্যায় পৌরশহরের বিএনপি’র দলীয় কার্যালয়ে প্রহসনের নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার দাবিতে উপজেলা বিএনপি’র আয়োজনে এক কর্মীসভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় উপজেলা বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নূর নবীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন,বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ছোট ভাই,কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমীন।তিনি বলেন, এই অবৈধ সরকারের আমলে আমরা ১৫ বছর ধরে নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছি।
গায়েবী মামলা,জ্বালাও পোড়াওসহ বিভিন হামলা- মামলা দিয়ে আমাদের দমিয়ে রাখা হয়েছে। বর্তমানে আমাদের সন্তানদের চাকুরী হয়না। তাই আওয়ামী লীগ আমাদের কখনো বন্ধু হতে পারেনা।
এ পাতানো নির্বাচন আমরা বর্জন করেছি। আপনারা কেউ ভোট কেন্দ্রে যাবেন না মানুষকেও ভোট কেন্দ্রে যেতে নিরুসাহিত করবেন। তিনি আরো বলেন, যারা সঠিক সিদ্ধান্ত মানবেন না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
সভায় উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আল্লামা আল ওয়াদুদ বিন নূর আলীফের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি নুর আলম,সাংগঠনিক সম্পাদক জাফরুল্লাহ, পৌর সভাপতি অধ্যাপক শাহাজান আলী প্রমুখ।
এছাড়াও বিএনপি ও তার সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন নেতাকর্মী ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।
নির্বাচন প্রসঙ্গে রাণীশংকৈল উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নূর নবী বলেন, আমরা এই লোক দেখানো নির্বাচন মানিনা। আমাদের নেতাকর্মীদের মাঝে মিটিং ও লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। যেন তারা নির্বাচনে ভোট দিতে যেতে না পারে। এ ব্যাপারে সকলকে ঐক্যবন্ধ হবার আহ্বান জানান তিনি।
পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মহসিন আলী বলেন, আমাদের কোন নেতাকর্মী ভোট দিতে যাবেনা। আমরা সেই ব্যবস্থা নিচ্ছি। আলোচনা শেষে জেলা সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমীন দখলদার আওয়ামী সরকারের প্রতারণামূলক ডামি উপজেলা নির্বাচন বর্জনের দাবিতে লিফলেট বিতরণ করেন। এ সময় ৮টি ইউনিয়ন, ১টি পৌরসভার সভাপতি সম্পাদকদের মধ্যে বেশির ভাগ নেতা অনুপস্থিত ছিলেন। এদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে মর্মেও তিনি জানান।
প্রসঙ্গত: রাণীশংকৈল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন মহিলা সংরক্ষিত আসন ( মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান) পদে ৪ জন সহ ৩টি পদে মোট ১২ জন প্রতিদ্বনাদ্বীতা করছেন। এর মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান পদে পৌর বিএনপির নেতা হযরত আলী ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করায় তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আগামী ২১ মে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।