আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ঋণের সুদহার ছাড়ালো ১৫ শতাংশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ১২:০১:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ মার্চ ২০২৪
  • / ১০৫ Time View

সুদের ভিত্তি হার বেড়ে যাওয়ায় মার্জিন কমলেও দেশের ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের আমানত ও ঋণের সুদহার বেড়েছে। এর ফলে ঋণের সুদহার হবে ১৫ দশমিক ১১ শতাংশ, যা আগের ১৩ দশমিক ৪৭ শতাংশ থেকে বেশি।
সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের জারি করা এক প্রজ্ঞাপন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর (এনবিএফআই) দেওয়া আমানতের ওপর সর্বোচ্চ সুদ বা মুনাফার হার হবে স্মার্ট প্লাস ২ দশমিক ৫ শতাংশ, যা নভেম্বরে ছিল ২ দশমিক ৭৫ শতাংশ। আর ঋণ, ইজারা বা বিনিয়োগের বিপরীতে ঋণের সুদহার হবে স্মার্ট প্লাস ৫ দশমিক ৫ শতাংশ, যা আগে ছিল ৫ দশমিক ৭৫ শতাংশ।
স্মার্ট রেট বলতে ট্রেজারি বিলের ছয় মাসের মুভিং এভারেজ রেটকে বোঝায়। বর্তমান স্মার্ট ৯ দশমিক ৬১ শতাংশ, যা নভেম্বরে ছিল ৭ দশমিক ৭২ শতাংশ।
ফলে আমানতের সুদহার এখন সর্বোচ্চ ১২ দশমিক ১১ শতাংশ হবে, যা নভেম্বরে ছিল ১০ দশমিক ৪৭ শতাংশ। একইভাবে ঋণের সুদহার হবে ১৫ দশমিক ১১ শতাংশ, যা আগের ১৩ দশমিক ৪৭ শতাংশ থেকে বেশি।
বাংলাদেশ ব্যাংক জানিয়েছে, নতুন আমানত ও ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে নতুন সুদের হার প্রযোজ্য হবে।
এর আগে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ব্যাংকগুলোর ঋণের সুদহারের মার্জিন ২৫ বেসিস পয়েন্ট কমায় বাংলাদেশ ব্যাংক।
এখন ব্যাংকগুলোকে ঋণের ক্ষেত্রে স্মার্টের সঙ্গে সাড়ে তিন শতাংশ মার্জিন আরোপ করতে দেওয়া হয়েছে, যা আগে ছিল ৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। প্রি-শিপমেন্ট রপ্তানি ও কৃষি খাতে ঋণের ক্ষেত্রে ঋণহারের মার্জিন ২ দশমিক ৭৫ শতাংশের পরিবর্তে ২ দশমিক ৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ঋণের সুদহার ছাড়ালো ১৫ শতাংশ

Update Time : ১২:০১:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ মার্চ ২০২৪

সুদের ভিত্তি হার বেড়ে যাওয়ায় মার্জিন কমলেও দেশের ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের আমানত ও ঋণের সুদহার বেড়েছে। এর ফলে ঋণের সুদহার হবে ১৫ দশমিক ১১ শতাংশ, যা আগের ১৩ দশমিক ৪৭ শতাংশ থেকে বেশি।
সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের জারি করা এক প্রজ্ঞাপন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর (এনবিএফআই) দেওয়া আমানতের ওপর সর্বোচ্চ সুদ বা মুনাফার হার হবে স্মার্ট প্লাস ২ দশমিক ৫ শতাংশ, যা নভেম্বরে ছিল ২ দশমিক ৭৫ শতাংশ। আর ঋণ, ইজারা বা বিনিয়োগের বিপরীতে ঋণের সুদহার হবে স্মার্ট প্লাস ৫ দশমিক ৫ শতাংশ, যা আগে ছিল ৫ দশমিক ৭৫ শতাংশ।
স্মার্ট রেট বলতে ট্রেজারি বিলের ছয় মাসের মুভিং এভারেজ রেটকে বোঝায়। বর্তমান স্মার্ট ৯ দশমিক ৬১ শতাংশ, যা নভেম্বরে ছিল ৭ দশমিক ৭২ শতাংশ।
ফলে আমানতের সুদহার এখন সর্বোচ্চ ১২ দশমিক ১১ শতাংশ হবে, যা নভেম্বরে ছিল ১০ দশমিক ৪৭ শতাংশ। একইভাবে ঋণের সুদহার হবে ১৫ দশমিক ১১ শতাংশ, যা আগের ১৩ দশমিক ৪৭ শতাংশ থেকে বেশি।
বাংলাদেশ ব্যাংক জানিয়েছে, নতুন আমানত ও ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে নতুন সুদের হার প্রযোজ্য হবে।
এর আগে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ব্যাংকগুলোর ঋণের সুদহারের মার্জিন ২৫ বেসিস পয়েন্ট কমায় বাংলাদেশ ব্যাংক।
এখন ব্যাংকগুলোকে ঋণের ক্ষেত্রে স্মার্টের সঙ্গে সাড়ে তিন শতাংশ মার্জিন আরোপ করতে দেওয়া হয়েছে, যা আগে ছিল ৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। প্রি-শিপমেন্ট রপ্তানি ও কৃষি খাতে ঋণের ক্ষেত্রে ঋণহারের মার্জিন ২ দশমিক ৭৫ শতাংশের পরিবর্তে ২ দশমিক ৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে।