আধিপত্য নিয়ে কুমিল্লায় গুলিতে ছাত্রদল কর্মী নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৬:৫০:১৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০২৪
  • / ২৬ Time View

সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ, কুমিল্লা

কুমিল্লায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গুলিতে ছাত্রদেলের এক কর্মী নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আরও চারজন।

শুক্রবার বেলা আড়াইটার দিকে শহরের শাসনগাছা মধ্যমপাড়া আবুল কাশেম ও মোল্লা বাড়ির রাব্বি এবং সাক্কুর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে নিহত হন তিনি।

নিহত ২৭ বছর বয়সী জামিল হাসান অর্ণব শাসনগাছা মধ্যমপাড়া আজহার মিয়া ছেলে। ছাত্রদল কর্মী ছিলেন তিনি। এ ছাড়া শাসনগাছা বাস টার্মিনালের সততা বাস সার্ভিসের ম্যানেজার ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ডিগ্রি শাখার শিক্ষার্থী ছিলেন অর্ণব।

সংঘর্ষে যে চারজন আহত হয়েছেন তাদের মধ্যে নাজমুল জামান অনিকের (২৮) ডানপায়ে গুলি লেগেছে, এ ছাড়া চেয়ামত উল্লাহর (৩৫) কোমরে, নুরুল আফসার মোহনের (২২) পিঠে এবং নাজমুল হাসান (২৬) হাতের নিচে গুলি লেগেছে।

স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শুক্রবার জুমার নামাজের পর নগরীর শাসনগাছা বাস টার্মিনালে কর্মরত অবস্থায় অর্ণবকে একই এলাকায় ছাত্রলীগ কর্মী রাব্বি ও আলাউদ্দিন এসে প্রকাশ্যে গুলি করেন। পরে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা আহতদের কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক অর্ণবকে মৃত ঘোষণা করেন।

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি ফিরোজ হোসেন বলেন, পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। পরে বিস্তারিত বলব।

কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নাদিমুর রহমান শিশির বলেন, অর্ণব আমাদের কর্মী। সাংগঠনিকভাবে দুর্বল থাকায় তাকে হত্যা করা হয়েছে। এবারের কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের প্রস্তাবিত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে তার নাম বিবেচনায় রাখা হয়েছিল

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

আধিপত্য নিয়ে কুমিল্লায় গুলিতে ছাত্রদল কর্মী নিহত

Update Time : ০৬:৫০:১৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০২৪

সোহাইবুল ইসলাম সোহাগ, কুমিল্লা

কুমিল্লায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গুলিতে ছাত্রদেলের এক কর্মী নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আরও চারজন।

শুক্রবার বেলা আড়াইটার দিকে শহরের শাসনগাছা মধ্যমপাড়া আবুল কাশেম ও মোল্লা বাড়ির রাব্বি এবং সাক্কুর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে নিহত হন তিনি।

নিহত ২৭ বছর বয়সী জামিল হাসান অর্ণব শাসনগাছা মধ্যমপাড়া আজহার মিয়া ছেলে। ছাত্রদল কর্মী ছিলেন তিনি। এ ছাড়া শাসনগাছা বাস টার্মিনালের সততা বাস সার্ভিসের ম্যানেজার ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ডিগ্রি শাখার শিক্ষার্থী ছিলেন অর্ণব।

সংঘর্ষে যে চারজন আহত হয়েছেন তাদের মধ্যে নাজমুল জামান অনিকের (২৮) ডানপায়ে গুলি লেগেছে, এ ছাড়া চেয়ামত উল্লাহর (৩৫) কোমরে, নুরুল আফসার মোহনের (২২) পিঠে এবং নাজমুল হাসান (২৬) হাতের নিচে গুলি লেগেছে।

স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শুক্রবার জুমার নামাজের পর নগরীর শাসনগাছা বাস টার্মিনালে কর্মরত অবস্থায় অর্ণবকে একই এলাকায় ছাত্রলীগ কর্মী রাব্বি ও আলাউদ্দিন এসে প্রকাশ্যে গুলি করেন। পরে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা আহতদের কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক অর্ণবকে মৃত ঘোষণা করেন।

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি ফিরোজ হোসেন বলেন, পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। পরে বিস্তারিত বলব।

কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নাদিমুর রহমান শিশির বলেন, অর্ণব আমাদের কর্মী। সাংগঠনিকভাবে দুর্বল থাকায় তাকে হত্যা করা হয়েছে। এবারের কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের প্রস্তাবিত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে তার নাম বিবেচনায় রাখা হয়েছিল