আইসিটি খাতে ২০ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : ০৪:৫৬:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ মার্চ ২০২৪
  • / ৩৩ Time View

আইসিটি খাতে ২০ লাখের বেশি তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছে। ফলে নতুন রপ্তানি খাত হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েও আইসিটিতে ১.৯ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয় হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

রোববার (১৭ মার্চ) ভাসানচরে সাব-পোস্ট অফিসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্পের সফল বাস্তবায়নের সুফল বাংলাদেশের জনগণ ভোগ করছে। করোনা মহামারির সময় সারা বিশ্ব যেখানে স্থবির হয়ে পড়েছিল, সেই পরিস্থিতিতে ইন্টারনেট ও প্রযুক্তির সহায়তায় আমরা শিক্ষা, স্বাস্থ্য, আইন ও বাণিজ্যসহ সব কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে পরিচালনা করতে সক্ষম হয়েছি।

তিনি বলেন, মার্চ মাস আমাদের জাতীয় জীবনে একটি অনন্য ঐতিহাসিক মাস। এই মাসেই জন্ম জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের। ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণে জাতির পিতা বলেছিলেন, ‘আমাদের দাবিয়ে রাখতে পারবা না’। জাতির পিতার সেই অদম্য স্পৃহা নিয়ে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের প্রযুক্তি নির্ভর ডিজিটাল বাংলাদেশে উন্নীত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আমাদের সামনে ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের নতুন রূপকল্প দিয়েছেন ।

পলক বলেন, অনেকেই অসম্ভব কল্পনা করলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘ভাসানচর’ প্রকল্পটি আজ মানুষের বসবাসের উপযোগী হয়েছে। পাশাপাশি বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিকভাবেও হয়ে উঠছে সম্ভাবনাময়। ভাসানচরের ৩৭ হাজার শরণার্থী নিজেদেরকে দক্ষ করার পাশাপাশি বিভিন্ন হাতের কাজ এবং সবজি ও মাছ চাষ করছে।

ভাসানচরে উৎপাদিত সব পণ্য যেন সারাদেশে পৌঁছে দেওয়া যায় এবং ভাসানচরের জনগোষ্ঠীকে যেন আধুনিক ব্যাংকিং, কুরিয়ার ও ই-কমার্স সেবার আওতায় নিয়ে আসা যায়, সেই লক্ষ্যে আজ থেকে ভাসানচরে স্মার্ট সার্ভিস ডেলিভারি পয়েন্ট হিসেবে ‘ভাসানচর সাব-পোস্ট অফিস’ এর যাত্রা শুরু করলো। একইসঙ্গে আগামীর সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে দেশের সব ডাকঘরগুলোকে স্মার্ট সার্ভিস ডেলিভারি সেন্টার হিসেবে গড়ে তোলা হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

আইসিটি খাতে ২০ লাখ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছে

Update Time : ০৪:৫৬:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ মার্চ ২০২৪

আইসিটি খাতে ২০ লাখের বেশি তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছে। ফলে নতুন রপ্তানি খাত হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েও আইসিটিতে ১.৯ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয় হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

রোববার (১৭ মার্চ) ভাসানচরে সাব-পোস্ট অফিসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্পের সফল বাস্তবায়নের সুফল বাংলাদেশের জনগণ ভোগ করছে। করোনা মহামারির সময় সারা বিশ্ব যেখানে স্থবির হয়ে পড়েছিল, সেই পরিস্থিতিতে ইন্টারনেট ও প্রযুক্তির সহায়তায় আমরা শিক্ষা, স্বাস্থ্য, আইন ও বাণিজ্যসহ সব কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে পরিচালনা করতে সক্ষম হয়েছি।

তিনি বলেন, মার্চ মাস আমাদের জাতীয় জীবনে একটি অনন্য ঐতিহাসিক মাস। এই মাসেই জন্ম জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের। ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণে জাতির পিতা বলেছিলেন, ‘আমাদের দাবিয়ে রাখতে পারবা না’। জাতির পিতার সেই অদম্য স্পৃহা নিয়ে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের প্রযুক্তি নির্ভর ডিজিটাল বাংলাদেশে উন্নীত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আমাদের সামনে ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের নতুন রূপকল্প দিয়েছেন ।

পলক বলেন, অনেকেই অসম্ভব কল্পনা করলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘ভাসানচর’ প্রকল্পটি আজ মানুষের বসবাসের উপযোগী হয়েছে। পাশাপাশি বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিকভাবেও হয়ে উঠছে সম্ভাবনাময়। ভাসানচরের ৩৭ হাজার শরণার্থী নিজেদেরকে দক্ষ করার পাশাপাশি বিভিন্ন হাতের কাজ এবং সবজি ও মাছ চাষ করছে।

ভাসানচরে উৎপাদিত সব পণ্য যেন সারাদেশে পৌঁছে দেওয়া যায় এবং ভাসানচরের জনগোষ্ঠীকে যেন আধুনিক ব্যাংকিং, কুরিয়ার ও ই-কমার্স সেবার আওতায় নিয়ে আসা যায়, সেই লক্ষ্যে আজ থেকে ভাসানচরে স্মার্ট সার্ভিস ডেলিভারি পয়েন্ট হিসেবে ‘ভাসানচর সাব-পোস্ট অফিস’ এর যাত্রা শুরু করলো। একইসঙ্গে আগামীর সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে দেশের সব ডাকঘরগুলোকে স্মার্ট সার্ভিস ডেলিভারি সেন্টার হিসেবে গড়ে তোলা হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।